1. halimxoc2@gmail.com : Admin@65 : জি কক্স টিভি
  2. azizurrahmanrajo@gmail.com : আজিজুর রহমান রাজু : আজিজুর রহমান রাজু
সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ০৯:১১ পূর্বাহ্ন
Latest Posts

প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ

রিপোর্টার
  • প্রকাশিত : মঙ্গলবার, ১৯ ডিসেম্বর, ২০২৩
  • ৭০৬ ভিউ সময়

গত ১৭ ডিসেম্বর উখিয়া কোটবাজার এর স্থানীয় এক অনলাইন সংবাদ কর্মী জাহাঙ্গির আলম তার ফেসবুক স্ট্যাটাসে উল্লেখ করা হয়েছে উখিয়া এলাকার মোটরসাইকেল চোর সিন্ডিকেট বলে একটি সংবাদ আকারে প্রচারিত হয়েছে এই সংবাদটি প্রতিবেদকের দৃষ্টি গোচর হয়েছে।

আবুল কালাম আজাদ বলেন,আমার বাড়ি উখিয়া উপজেলার সিকদারবিল, ৫ নং ওয়ার্ড, রাজাপালং ইউনিয়নে। আমি বাড়ি থেকে বের হয়ে উখিয়া স্টেশনে অবস্থান করি। এক পর্যায়ে আমাদের কিছু পারিবারিক জায়গার বিষয় নিয়ে কয়েকজন ব্যক্তির সাথে কথা হয়। ওই সময় আমার পাশে থাকা মোটরসাইকেল ছিল প্রশাসনের গাড়িও ছিল। কিন্তু আমি মোবাইলে কথা বলতে বলতে একটা গাড়িতে বসে কথা বলি। এবং হুট করে এক ব্যক্তি এসে আমাকে ছবি তুলে। এবং গালিগালাজ করে। তখন আমি তাকে জিজ্ঞেস করি আপনি কে? কি জন্য আমাকে ছবি তুলছেন?এটা কথা বলতে না বলতে আমাকে সেই ব্যক্তি আরো জোরে গালিগালাজ করে সেই আরো রাগান্বিত হয়ে আমাদেরকে মারধর করে। একপর্যায়ে মানুষ জড়ো হয়ে যায়। তখন আমাদেরকে চোর বলে সম্বোধন করে কথা বলেছিল। কোট বাজার এলাকার বাসিন্দা জাহাঙ্গীর আলম নামের এক অনলাইন কথিত পোর্টাল সাংবাদিক।সেই তার ফেসবুক একাউন্ট থেকে আমার নামে একটি স্ট্যাটাস দেওয়া হয়েছে। ওখানে বলা হয়েছে উখিয়া উপজেলার আমি মোটরসাইকেল চোর সিন্ডিকেটের প্রধান বলে এই স্ট্যাটাসটি দেওয়া হয়েছে। এটি হাস্যকর এবং বিভ্রান্তিকর,একই সাথে মানহানিকর। যেখানে একজন সাংবাদিক যিনি পেশাদারিত্ব বজায় রেখে এসব আপত্তিকর স্ট্যাটাস নিজের আক্রোশ হাসিল করার জন্য দিতে পারেনা। আমি সাংবাদিকদেরকে সম্মান করি। সাংবাদিক সমাজ দেশের ও রাষ্ট্রের কল্যাণমূলক কাজ করে যাচ্ছে।সাংবাদিকদের কে বলা হয় সমাজের দর্পণ। এইসব কথিত অনলাইন পোর্টাল সাংবাদিক বলে দাবি করা সেই ব্যক্তিটি নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে একটা স্ট্যাটাস দিয়েছে সেখানে অনেক ধরনের লেখা ভুল হয়েছিল।সেই কীভাবে সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন এটা প্রশাসনের কাছে প্রশ্ন রইলো আমার? তবে আমি বলতে চাই এসব আপত্তিকর ও বেয়াইনমূলক স্ট্যাটাস দেখে মানুষ যেন বিভ্রান্তি না পড়ে।তবে ওইদিন আমরা গাড়ি চোরের সাথে সম্পৃক্ত আছি বলে সেই আমাদের কাছ থেকে টাকা দাবি করেছিল। টাকা না দিলে আমার বিরুদ্ধে সংবাদ প্রচার করবে এবং আমাকে হুমকি দিয়ে যাচ্ছিল।বর্তমানে আমাদেরকে প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে তারা বিভিন্নভাবে পাঁয়তারা চালাচ্ছে।এটার আমরা সুস্থ বিচার চাই।সকল আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর প্রতি আকুল আবেদন থাকবে।আপনারা সঠিক তদন্ত করে প্রকৃত ঘটনাটি উদ্‌ঘাটন করার জন্য। সেই সাথে অনলাইনে ফেসবুকের স্ট্যাটাস সংবাদ আকারে প্রচার করা হয়েছে এটির আমরা তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।

মূলত এলাকায় আমাদের একটা মান-সম্মান রয়েছে। আমি ছোটখাটো ব্যবসা করে যাচ্ছি।সেই সাথে একটি বেসরকারি এনজিও সংস্থায় চাকরি করি।পাশাপাশি আমি এলাকায় রাজনীতির সাথে যুক্ত রয়েছি। এতে আমাদের মান সম্মানকে ক্ষুণ্ন করার জন্য এলাকায় একদল কুচক্রী মহল লেগে পড়ে আছে। তবে আমাদেরকে নিয়ে স্থানীয় ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস সংবাদ আকারে প্রচার করা হয়েছিল তবে কেন করা হয়েছে? তা আমি জানিনা,এবং কে বা কারা সাংবাদিকদের মিথ্যা তথ্য দিয়ে আমাদের নামে একটি সংবাদ পরিবেশন করেছে, আমরা এলাকায় সুস্থ ও সুন্দরভাবে বসবাস করে কোন রকমে বাঁচতে চাই।যদিও বা এ সমস্ত আমাদের বিরুদ্ধে অপকর্মের সাথে জড়িত আছি বলে উল্লেখ করে।আমি সমাজে কাকে মুখ দেখাবো,আমাদের পরিবারে একটা সুনাম রয়েছে। তবে সাংবাদিকেরা সংবাদ পরিবেশ করেছে তবে আমি তাদের প্রতি অনুরোধ জানাই।আপনারা সংবাদ করতে গেলে সঠিক তদন্ত করে সঠিক তথ্য গুলো উল্লেখ করবেন।তবে সাংবাদিকতা এক মহা পেশা, তবে সাংবাদিকদের বলা হয় এই সমাজের দর্পণ,এই পেশাকে কলুষিত করতে হলে এসমস্ত বৃত্তিহীন মনগড়া সংবাদ থেকে দূরে থাকুন। একটি কথা হল এক পক্ষ তো সংবাদ হয় না।অবশ্যই কারো বিপক্ষে সংবাদ পরিবেশন করতে হলে অবশ্যই তার বক্তব্য নেওয়া উচিত।তবে আমার এলাকার শুভাকাঙ্ক্ষী এবং প্রশাসনের প্রতি বিনীত অনুরোধ জানাচ্ছি এ সমস্ত সংবাদ দেখে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য সবিনয় অনুরোধ জানাচ্ছি।তবে তারা আমরা যে হামলার সাথে জড়িত বলে একটি শব্দ তারা উল্লেখ করেছে।এটা আমি চ্যালেঞ্জ করে বলতে পারব।আমি কাউকে কোন ধরনের অন্যায় ও করিনি।বর্তমানে আমি একজন চাকরিজীবী মানুষ।

এবং আমার পরিবারের আমি একজন সন্তান, আমার রোজগার দিয়ে কোনোমতে সংসার চলে।আমি এলাকায় সুন্দর করে জীবন যাপন করে যাচ্ছি।একদল লোক সাংবাদিকদের মিথ্যা তথ্য দিয়ে আমাদের নামে অনলাইন ফেসবুকে শিরোনাম করা হয়েছে। এই সংবাদের কোন বৃত্তি নাই। আমি এই জীবনেও কোন অপরাধের সাথে জড়িত নয়।আমি একজন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী,ও চাকরিজীবী মানুষ হয়ে কীভাবে এই কাজ করবো? এলাকায় আমার একটা সুনাম রয়েছে।এই সংবাদ শিরোনামের তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাই। এইসব মিথ্যা বানোয়াট ভিত্তিহীন ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বিভ্রান্তিমূলক স্ট্যাটাস এর তীব্র প্রতিবাদ করছি।আমি এই স্ট্যাটাস সংবাদে আমার ও শুভাকাঙ্ক্ষী এলাকাবাসী এবং সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের লোকজন কে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য সবিনয় অনুরোধ করছি।

আসলে সত্য কথা হল,এটি চরম মিথ্যাচার।আমি আমার পরিবারের মা বোনকে নিয়ে কোনোমতে জীবন কাটাতে চাই। আমাদের বিরুদ্ধে সকল ষড়যন্ত্রে আমার এলাকাবাসীর কাছে সহযোগিতা চাচ্ছি। আমি সাবধান করতে চাই। যারা আমার বিরুদ্ধে মিথ্যাচার করে আমাদের সম্মানহানি করে তাদের প্রতি অনুরোধ জানাই।না হয় আমি প্রয়োজনে আইনগত তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিব।পাশাপাশি আমার সাংবাদিক ভাইদের প্রতি অনুরোধ আপনারা এসমস্ত মিথ্যা সংবাদ পরিবেশন না করার জন্য।

প্রতিবাদকারী :-
নাম আবুল কালাম আজাদ
পিতা কবির আহাম্মদঃ ঠিকানা সিকদারবিল, ৫ নং ওয়ার্ড, রাজাপালং ইউনিয়ন, উখিয়া, কক্সবাজার।

Please Share This Post in Your Social Media

One response to “প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ”

  1. Simply wish to say your article is as astounding. The clearness in your post
    is simply great and i could assume you are an expert on this subject.
    Well with your permission allow me to grab your RSS feed to keep up to date with forthcoming post.
    Thanks a million and please keep up the rewarding work.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
© All rights reserved © gcoxtv.com
ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট @ Themes Seller.